I’m a dropout horse

I always suffer from the dilemma whether poetry can at all be “translated”. These one-liners have been translated, with necessary changes in some texts, keeping in mind the main spirit of Maznu Shah’s poetry. Hence the tune of the translation is neither truly authentic, nor grammatical, rather abstract. Here are 70 poems from Maznu Shah’s ‘I’m a dropout horse’. – Andaleeb.


কে তুমি?
…আমাকে বলছ? আমি? ওহ্, তবে শোনো, আমি এক ড্রপআউট ঘোড়া।

Who are you?
…talking to me? I am? Listen up; I’m a dropout horse all the way.


তোমার সূক্ষ্ম-সত্তা গিলে খায় আমার সমস্ত সৃষ্টিকে।

Your integrity engulfs all my devises.


আরো এক অন্তর্মুখী বাগানের দেখা পাই।  স্বপ্নেরা ঘুরছে।
থম মেরে আছে পাখিদের রঙ শুষে নেয়া গাছ।  কেউ একজন
উন্মাদকণ্ঠে ডেকে চলেছে, ধ্রুবতারা, ধ্রুবতারা…

Yet another spiritual garden appears. Dreams are rambling.
The woods that obscured colors from the birds are silent now.
I hear, someone is yelling madly – Dhrubotara, Dhrubotara…


হয়রান হলে তুমি অস্পষ্ট সাপের তাৎপর্য ভেবে।

You’ve gone sick and tired of the serpent of your mind.


এক মহাকাশ ঘুম জমে উঠছে কোথাও, আর একটা ঝুঁটিবাঁধা
কবুতর ছটফট করছে আমার ডার্ক চেম্বারে।

My fatigue is mounting somewhere in the outer space, and
a crown-headed pigeon is fidgeting in my dark chamber.


সেই অমিয়ধারা থেকে উঠে আসি।  দেখি বাক্যের পরিবর্তে
বিছানায় শুয়ে আছে বন্দুক।  আর অন্তরীক্ষে এক উপমা উড়ছে।

I ascend from the Ambrosia. Here I see no wording but a smoking gun
in my bed. And a metaphor is flying high in the sky.


আবহমান গাধার পিঠ থেকে পড়ে যাই আমি আর বন্ধুর বৌ।

Here I dethrone from the sacrament along with my paramour.


অনেক হয়েছে, এবার বাগ্মিতা পরিহার করো চাঁদ,
ভেসে যাচ্ছে একটি ছোট মেঘ, একখানি ছোট সিন্ধুমেঘ।

Oh Luna, it’s high time, let’s give up your rhetoric.
A sweet cloud, a piece of Indus-cloud is ambling nearby.


বিশ্বব্রহ্মাণ্ড আমার কাছে শব্দই একটা কেবল। এক কণা
স্বর্ণধূলি নিয়ে বসে আছি।

The world is nothing but an utterance. Now I have a gold dust in my fingertip,  twinkles.

১০
শরের জঙ্গল থেকে বেরিয়ে বৃদ্ধ পাখিটি কয়, ফর্ম বলে কিছু নাই,
কন্টেন্ট বলেও কিছু নাই, বায়োস্কোপ শুরু হল তবু।

Coming out of the shrub the old bird tweets – there is no form; no content at all, hitherto the bioscope started to roll.

১১
কারুরাত্রির খসে যাওয়া পালকের ভার সয় আমার এই বালিঘর।

My sand castle stands still even after the load of feathers of that
crafted night.

১২
কাকাতুয়া-সম্রাট, কোথায় তোমার লণ্ঠন ও বন্দুক?

Heil Cockatoo-king, where is your musket, your lantern?

১৩
শাম্স,এই খ্যাতি-লিপ্সা,এই মেরুপথের অন্ত না পাই।
এ কি নয় গাধার সঙ্গে সঙ্গম!

Shams, I don’t know where these endless roads are headed to;
and the lust of fames. Isn’t it bestiality?

১৪
ছিপ ফেলে বসে আছ তুমি।  কিছুক্ষণ পর পর পদ্মকে মৃদু ধাক্কা দিচ্ছে একটি বৌমাছ।
সবই কত পরিমাপহীন, চূড়ান্ত পার্থিব!

You are loitering with your fishing hook. After a certain while, a bride-fish
is seducing a Lotus. How inestimable everything here, extremely materialistic!

১৫
যেই তুমি এক রাজহংসীর মতো এলে, রক্তমাখা পাতা কুড়ানো শুরু করলাম ফের।

As you came to me like a swan, I started to collect the leaves messed-up
with blood.

১৬
তোমার মশলাবাক্সের গায়ে ফুঁ দেই, ফুটে ওঠে রাতের নির্মম গদ্য।

I puff at your spice-box; the cruel content of the night emerges.

১৭
জনশূন্য আয়নাস্টেশন। অদ্ভুত যাত্রীর মতো দাঁড়িয়ে আছে কয়েকটি দেবদারু।

A hollow station out there. Some deodar trees are pretending to be passengers.

১৮
সেদিন সাপলুডু খেলা সমাপ্তির কিছু পরে তোমার অর্গাজম হল।

Soon after the final episode of the Saapludo, you experienced a noble orgasm.

১৯
রামপ্রসাদ গাইছে কেউ। তোমাদের দুই বোনের কণ্ঠস্বর প্রায় একইরকম।
এখন গান ও গরম ছাই উড়ে আসছে তোমাদের বাড়ি থেকে।

Someone is singing Ramaprasada. Both of your sisters have analogous voices. Melodies and blistering ashes are coming out from your home now.

২০
অপরিজ্ঞাত ভাষা আমার পাশ দিয়ে ছুটছে।

Mysterious languages are running with my parallel.

২১
হে নক্ষত্র, আর কতকাল আমার জুতোহীন পায়চারি?

Hey my guiding star, how long I should walk barefoot?

২২
স্বপ্নের দায়িত্ব মাঝে মাঝে দুএকটা যৌন-খরগোশ সহজে ধরে আনা।

Couple of libido-rabbits ought to be hunted in dreams.

২৩
একেকদিন ও-বাড়ির ছোট বৌদির হাত ফসকে সিঁদুরকৌটো পড়ে গিয়ে
তার সারা পৃথিবী মেখে যায়।

Sometimes the world goes wrong when their tender bride slumps
down her vermilion pot.

২৪
কিছু কিছু খিস্তিখেউড় আমি গোলাপকুঁড়ির কানে ঢালি।

Slowly I pour some bizarre slang straight into the heart of a rose bud.

২৫
ভ্রমর এসে দেখে যায় তোমার আজানুলম্বিত চুল ঠিকভাবে আঁচড়ানো কিনা।

The bumble-bee verifies whether you have properly combed your hair.

২৬
আমি কি দেখি নি তোমার ডুবন্ত আলো?

Haven’t I seen your dwindling light?

২৭
এবং তোমার মেকআপ রুমেও বিড়াল উপস্থিত আছে।

And even here is a cat in your Makeup room.

২৮
পিঁপড়ের গর্তের সামনে বসে আছি।  একটু দূরে, এক অচেনা বনমানুষ
বেতো ঘোড়ার পায়ের ছাপ লক্ষ করে হাসছে।  তার হাতে চক-পেন্সিল।
এখানে আজকাল প্রত্যেকের হাতে কেন এত চক-পেন্সিল?

I am seating down next to the Ant-colony. Nearby an anonymous Ape
is observing the footsteps of a pathetic Horse. It holds a white-charcoal.
Do you know why everybody is carrying so many?

২৯
সব নাচ, মুদ্রা, তোমার জন্যে। তুমি অবশ্য এতদিনেও তবু নাচিয়ে ভল্লুক নও।
নও জগতের পুষ্পবাহক।

Dances and steps, it’s all for you. Though you are neither
a dancing-bear nor a flower-peddler.

৩০
রক্তরঞ্জিত মাঠে এখন বৌ চলে যাওয়া অঙ্ক-মাস্টার আর খেঁকশিয়ালেরা
বসে আছে চুপচাপ।

In the gruesome ground, a forsaken math-tutor and jackals are
sitting silent.

৩১
এক-আকাশ-বিজ্ঞাপন দিয়ে ঢাকি দেবদারুটির যৌনতা।

I cover up the civility of the Deodar tree with a massive hoarding.

৩২
মৃত্যু আসবে এপিফ্যানি লেখার রাতে।

Death to come on the eve of Epiphany.

৩৩
পরিত্যক্ত কামান ঘিরে খৈ-বৃষ্টি শুরু হল।

The popcorn-rain has started all around the holy Cannon.

৩৪
কোনো কিছুর মধ্যে যখন তুমি দেখতে পেলে বসানো আছে ক্ষুদ্রাকৃতি আয়না,তখন দৈব
নিজেকে দেখছে,ধীর এক রাত্রিপতন শুরু হয়ে গেছে হয়ত ততক্ষণে কোথাও।

When you find a tiny mirror placed in a cradle, surely it’s celestial.
A slow death reveals somewhere nearby.

৩৫
কোনো কোনো ফুলের মধ্যে মহীয়সী ডাকঘর আছে।

Some flowers aroma is the best communiqué.

৩৬
তোমার গমনপথ জুড়ে আমি আজ আজীবন সঞ্চিত পদ্মবীজ ছড়াতে এসেছি।

I came here to sow the wisdom-seed where your trail blaze.

৩৭
আমার দানাপানি ফুরিয়ে আসছে, ঝুমকোজবা।

I am running out of bucks, sweetheart.

৩৮
ঐ ময়ূর-টিলা, আর তার শীর্ষে ঐ গাবগাছের ছায়া পর্যন্ত পৌঁছানোর আগে
আমাদের আইস্ক্রিম গলে গেল।

That’s the Peacock-mound, our Ice-Cream had melted slowly
before we reached for the velvet-apple tree at the top.

৩৯
ঝরাপাতা, এই নাও আমার মধ্যযুগীয় শরীর, বাক্যশরীর।

Oh fallen leaves, please take my medieval psyche, my lexis.

৪০
ঢাউস একটা রেডিওর নব ঘোরাচ্ছেন কলাদেবী। আমি ঘোড়ার ঘাস কাটি আর
লীলাশব্দচঞ্চল তাকে দেখি।

The Muse is tuning the radio knob. Here I do nothing but
stimulating her art-cells on.

৪১
সাত আট রকম খরগোশ সাত আট রকম ছন্দে দুলছে।

Some kinds of rabbit, some kinds of blue.

৪২
চক্রাকারে নেমে আসে ঘৃণা।  কিংবদন্তি, এই নাও প্রশ্ন, পেয়ালা, চাবুক, অন্তর্লিখন।
শুধু বলো, কীভাবে অর্জন করেছ তোমার এই সূক্ষ্ম স্বর।

Hatred is a downward spiral. My deity, here is the query, the coffee-cup,
the cruel thrash and all your subterranean write-up. Now tell me, how did
you manage this intonation.

৪৩
বাতাসে লাট খাচ্ছে একটা জ্যোৎস্নাখেকো দূরবীন।

An intoxicated binocular is toppling in the nocturnal breeze.

৪৪
আগুন রঙের সিংহ ফ্যা ফ্যা করে ঘুরছে আর মিসিং লিঙ্ক জুড়ে শব্দ হচ্ছে চাবুকের।

The fiery Lion is moving to and fro; and the sound of whip
is repairing a missing link.

৪৫
আকাশ অবধি উঁচু ঐ কাঠের মই যখন পুড়ছে, তার চেয়ে কে আর আছে সুন্দর?

What could be more beautiful than watching Heaven burns?

৪৬
প্যারাফিন লণ্ঠন হাতে পার হই অশুভ হাসির রাত।

Holding the paraffin-lantern in my hand, I pass through the
evil night of laughter.

৪৭
আর কত নেগেশন, নেগেশনের নেগেশন, বরং আত্মাকে দিগম্বর করো,
দেহ কি ম্যান্ডেট চায় কোনো? মৃত চাঁদ ঘিরে তোমাদের আর কত শিল্পতামাশা?

How much negation, negations of negation; rather expose your soul.
Does this body want any mandate? How long you’d satire this old,
bitter Moon?

৪৮
যতই লাইব্রেরির গভীরে যাই, দেখি সাপের বাক্সের উপর বসে হাসছে
শার্ল বোদলেয়ার।

The deeper you get into the Library, the closer you see Charles Baudlaire smiling at you from the top of a snake crate.

৪৯
তোমার গৃহশিক্ষক তোমার কাঁটাগাছ খেয়ে ফেলতে চায়, জানো?

Do you know, your house tutor wants to make salad of your cactus?

৫০
ফিসফিস করে বলা কথাগুলো কোনোভাবে শুনতে রাজি নয় এই উটপাখিটি।

This Ostrich doesn’t want to hear your whisper at all.

৫১
এই আমাদের প্রথম দেখা, মরুসন্ন্যাসিনী, কেমন থাকো তুমি প্রান্তরে একা, ঘূর্ণিহাওয়ায়?
আকাশে যখন লড়তে থাকে দুটি দৈত্য, ভয় পাও?

This is our first meeting, dear cactus-devotee. How do you used to
live here in this deserted field, all alone – in this Simoom?
Don’t you fear, when titans fight each other in the sky desperately?

৫২
সান্তাহারগামী ডাউনট্রেনের মহিলা-কামরা থেকে আজ এত ভুট্টা পোড়া গন্ধ আসছে কেন?

Why so much smoke signals are coming down from the ladies     compartment of the train to Santahar?

৫৩
স্ফুলিঙ্গ ঝরছে নভশ্চরের মাথায়।

Electric sparks are dispensing onto the head of a flying object.

৫৪
কুশপুতুল, বলো তো এই খেলার প্রতিভা কত দূরে নিয়ে গিয়ে ফেলবে আমাদের?

How far we could go with our sporty skills, tell me my ragged doll.

৫৫
মধ্যরাতে, একটা আদ্যিকালের বন্দুকের মতো আচরণ করো তুমি মাঝে মাঝে।

In the middle of night, sometimes you act like a musket.

৫৬
মহাকাশযান থেকে নেমে জীবনানন্দ এখন রাই ঘাসেদের সাথে কথা বলছেন।
নগ্ন নির্জন পায়ে এর পর রওনা দেবেন যেখানে কেবল হংসধ্বনি।

Getting down from the spaceship, the celestial poet is now chattering with
the Rai grasses. In barefoot, he will then reach his secret Swan-lake.

৫৭
অষ্টধাতুর আংটি পড়ে আছে হিংস্র এক বিড়ালের সামনে।

A wild cat is staring at the alloy ring that glitters.

৫৮
কয়েক স্তর ঘুমের আড়ালে তৈরি হয় কিন্নর-ভরা পথ।

After some layers of doze, here come all heavenly singers.

৫৯
তুমি উপড়ে ফেলছ ক্রমাগত ব্যবহৃত রাস্তা,কাজুবন,মুখর সত্য,চিতাবাঘের আস্তানা
আর পুরনো যত ধ্বনির দ্যোতনা।

Slowly you are uprooting your path, spice-woods, live wires, big cats cavern and some good old melodies.

৬০
মূক-বধিরদের দেশে ঢুকে পড়েছি ভুলে। এদিকে আমার ঘোড়াটি প্রায় অন্ধ।

Mistakenly I’ve reached the land of mute and deaf.
And my horse out there is almost blind, immobile.

৬১
অন্ধকার প্রান্তরে, একবাটি বাঘিনীর দুধ নিয়ে তুমি কোথায় চলেছ?

Where are you going in this dark terrain, with lacto-extract
of a vindictive Tigress?

৬২
ভস্ম ছড়ানো জঙ্গলে আমি একটা বনমোরগ দাবড়ে বেড়াচ্ছি।

I am chasing a woodcock in this ashen forest.

৬৩
অনেকগুলো বিবাহবার্ষিকী পেরিয়ে, আমরা এখন সেই ভ্যানিশিং পয়েন্টে পৌঁছে গেছি,
টিয়াপাখি তুমি শোনো।

After many centenaries, we have finally reached the vanishing point,
my love bird.

৬৪
দুঃখপ্রণেতা ওদিকে আজ যোনিপূজা নিয়ে আছে।

The sinister is very busy in cunt-worshipping.

৬৫
সামনে যেতে যেতে কাঠবিড়ালিটি অভয় দেয়,এই সুড়ঙ্গ পেরোলেই রমণবিদ্যা।

The Squirrel promises me about sexology; and guides me
to the end of this tunnel.

৬৬
হেঁটে চলেছে ছায়ামূর্তি।  স্মরণীয় অগ্নিশিখা জ্বলছে ব্রহ্মকমলের পাশে। আজ আমার শুধুই আহরণ। স্টাফ্ড পেঁচা আর অতি লালবর্ণ ক্যালেন্ডার খুঁজে ফেরা।

The silhouette is now moving. The bonfire is decorating the Grand-lotus. Today I am here to assemble. I am here to find out my stuffed owls and crimson calendars.

৬৭
তারাপুঞ্জ, মা কোথায়?

Hello Andromeda, where are those dark matters?

৬৮
দুজনে মহুয়া খেয়েছি সন্ধ্যায়। চূর্ণ চূর্ণ ঘাস উড়ছে রাত্রি জুড়ে।

We guzzled Mohua in the evening and saw fuzzy grasses were
hovering all night long.

৬৯
মাথায় শাপলা-জড়ানো একটা জলঢোঁড়া এখন এগিয়ে আসছে তোমার দিকে।

One water-snake is now coming towards you with a crown of Lilly.

৭০
ক্ষিপ্ত ঘোড়ায় বসে থাকার প্রাণান্ত চেষ্টা করছে এক বনমানুষ।
তার থলি থেকে ছিটকে পড়ছে রক্তজবা ও মার্বেল।

An ape-man is trying to survive on a wild horseback.
All crimson flowers and marbles are sprinkling from his pouch.

translated by Andaleeb.

About author

Maznu Shah
Maznu Shah 2 posts

Maznu Shah's (born: March 26, 1970) home country is Bangladesh. A poet by choice and passion, he has authored six books namely, Aanka Megher Jeeboni, Leelachurno, Modhu O Moshlar Boney, Zebramaster, Brahmmander Gopon Aayna, and Aami Ek Dropout Ghora. He has tried his hands in weird combination of jobs -some of which are: Proofreading, Farming, Merchandising, Working in daily newspapers etc. Currently, he lives in Brescia, Italy and earns his bread and butter as a chemical factory worker. His family comprises wife and two sons.

1 Comment

  1. Tanvir Ratul
    March 15, 22:07 Reply
    I'm not a huge fan of one-line poems but collections of one-line poems masquerading as larger work is entirely a different ball-game. However, I also find myself forced to stumble across 'one-liners' such as the above ones, that has no significance in either from wider perspective or as a momentary joy-ride/read. These are adequate enough to not only just make the readers doubtful about the poet's intention and ability, but also ask the distinction between one line poems and aphorisms. Aphorism generally calls to mind an adage, a thing commonly held true, a pithy statement that barely skirts cliche. Even though I agree with the sentiment that, one line is not sufficient to establish the scope or depth of meaning associated with "true" Poetry as opposed to "mere" Verse, one-line poems are often fascinatingly complex and evocative-- poems that are wholly shaped in so compact space, rather than just being a really good line that belongs in a longer piece. But these poems fail to have any kind of such elements, and thus the impact.

Leave a Reply